বলিউড স্টার হওয়ার আগে সালমান খান কী কাজ করতেন জানলে চমকে যাবেনই

বলিউডের এই তারকার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে নিয়ে যত আলোচনা সমালোচনা হয়েছে আর কোনো তারকাকে নিয়ে হয়েছে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। বরাবরই ব্যক্তিগত জীবনে একাধিক রূপসী নারীর আগমন, পরিবারের প্রতি একাত্মতা, কখনই বিয়ের বন্ধনে না বাঁধা, বদমেজাজ, সমাজ কল্যাণমূলক কাজ এসব নিয়ে কম বিতর্কের সম্মুখীন হননি বলিউডের দাবাং হিরো। তিনি বলিউডে ভাইজান নামেও পরিচিত। তিনি সালমান খান। সালমানের একটা সিনামা দেখবার জন্য হলের সামনে ঘন্টার পর ঘন্টা লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতেও রাজি ফ্যানেরা। তাই প্রিয় হিরোকে নিয়ে ভক্তদের মধ্যে যেন কৌতূহলের শেষ নেই। তাই তাঁর প্রতিটা মুহূর্ত সম্পর্কে সকলের জানার আগ্রহ প্রচুর। অনেকেরই প্রশ্ন বলিউড কাঁপানো এই স্টার অভিনেতা হওয়ার আগে কী করতেন? এই উত্তর পেতে গেলে আপনাকে পড়তে হবে পুরো প্রতিবেদনটি।

Image Source – https://www.hindustantimes.com

সেলিম খান এবং তাঁর প্রথম স্ত্রী সুশিলা চরকের ছেলে সালমান খান। সালমান খানের দাদা ইন্দোরের ডেপুটি ইন্সপেক্টর জেনারেল ছিলেন। সালমান খানের সত্ মা হলেন বলিউড কাঁপানো অভিনেত্রী হেলেন। ছবি খ্যাত ভাইজান আসলে বাস্তব জীবনেও ভাইজান। তাই তাঁর প্রিয় মানুষ হলেন ভাই আরবাজ ও সোহেল, দুই বোন আলবিরা খান ও অগ্নিহোট্রি খানে। সেলিম খান এবং হেলেন দত্তক নেন অর্পিতা খানকে। তিনিও সালমানের প্রিয় মানুষ।

Image Source – https://www.indiatoday.in

গোয়ালিয়রের সিন্ধিয়া স্কুলে সালমানের পড়াশোনা শুরু। এর পর মুম্বইয়ের সেন্ট স্ট্যানিসলস হাইস্কুলে ভর্তি হন তিনি। পরে বান্দ্রা ন্যাশনাল কলেজেও ভর্তি হয়েছিলেন। কিন্তু পড়া ছেড়ে দেন। দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত পড়েছেন তিনি। স্কুলে পড়ার সময় বহুবার সাঁতার প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন তিনি। ভারতের প্রতিনিধি হিসেবে সালমান দেশের বাইরেও সাঁতার প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছেন। তবে পরিবারের স্বার্থে উপার্জনের জন্য সাঁতারটাও চালিয়ে যেতে পারেননি।সালমান উপার্জন করার জন্য ছোট খাটো কিছু কাজ করতে শুরু করেন। অনেকে হয়তো জানেন না যে তিনি একসময় হোটেলে ওয়েটার হিসেবেও কাজ করেছিলেন।

Image Source – https://www.thenational.ae

তবে সালমানের ইচ্ছেশক্তি ও বড় হয়ে ওঠার ইচ্ছাই তাঁকে পৌঁচ্ছে দিয়েছে সাফল্যের সিঁড়িতে। ১৯৮৮ সালে ‘বিবি হো তো অ্যায়সি’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে পা রাখেন সালমান খান। তার দ্বিতীয় ও সাফল্য পাওয়া ‘ম্যায়নে পেয়ার কিয়া’ (১৯৮৯) ছবির জন্য ফিল্মফেয়ার সেরা অভিনেতার পুরস্কার লাভ করেন। তারপর আর ঘুরে তাকাতে হয়নি বলিউডের ভাইজানকে। সজন, হাম আপকে হ্যায় কৌন, করণ-অর্জুন, বিবি নাম্বর ওয়ান, হাম দিল দে চুকে সানাম, তেরে নাম, পার্টনার, বডি গার্ড, দাবাং, রেডি, বজরংগী ভাইজান, সুলতানের মতো সফল ছবি রয়েছে তাঁর ঝুলিতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: