এই অভিনেতারা সুপারস্টার থেকে ফ্লপ অভিনেতায় পরিণত হয়েছেন- শেষের জনকে দেখলে অবাক হবেন

একটা ভুল বদলে দিতে পারে গোটা জীবনকে। ছোট্ট একটা ভুলের জন্য নষ্টও হয়ে যেতে পারে আপনার ক্যারিয়ার। মসৃণ পথকে অমসৃণ করে দিতে পারে জীবনের ছোট্ট একটি ভুল। ঠিক তেমনই ঘটেছে বলিউডের তিন জন অভিনেতার সাথে। একটা সময় তাঁরা পর্দা কাঁপিয়েছেন। তাঁদের একবার দেখার জন্য হলের সামনে লম্বা লাইন পড়ে যেত। ঊনিশ শতকের সেই তিনজন সুপারস্টার হিরো আজ ফ্লপ হিরোয় পরিণত হয়েছেন। এক সময়ের বলিউড কাঁপানো সেই তিনজন অভিনেতা হলেন –

সানি দেওল

Image Source – https://ebela.in

বলিউড অভিনেতা সানি দেওল যিনি তাঁর সিনেমাতে অ্যাকশনের জন্য খুব জনপ্রিয়। তার বিখ্যাত সিনেমাগুলো হলো গাদার,বডার ইত্যাদি। আজকাল সানি দেওলকে খুব কম সিনেমায় দেখা যাচ্ছে। ঘাতক, ঘায়াল এর মতো সিনেমায় অভিনয় করে বলিউডে একটা আলাদা চমক এনেছিলেন।“দামিনী” সিনেমা থেকে একটি ভিন্ন পরিচয় তৈরি করেছিলেন। সানি এখন লাইমলাইট থেকে দূরে আছেন। শুধু দূরেই নয়, তিনি একজন সো কলড ফ্লপ হিরো। কারণ তিনি সময়ের সাথে সাথে নিজেকে পরিবর্তন করতে পারেননি। সুপার হিরো হতে গেলে প্রয়োজন হ্যান্ডসাম, ড্যাসিং রোম্যান্টিক একজন পুরুষকে। কিন্তু সানি নিজেকে বলদাতে পারেননি। তিনি একজন পুরানো অ্যাকশন হিরোই থেকে গিয়েছেন।

ববি দেওল

Image Source – http://www.bd-pratidin.com

বলিউডের একজন খ্যাতনামা অভিনেতা ববি দেওল। তাঁর ‘ফ্ল্যামবয়েন্ট লুক’ একটা সময় উঠতি বয়সের মেয়েদের কাছে জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। রোম্যান্সের সঙ্গে সঙ্গে ধুন্ধুমার অ্যাকশনই ছিল ববি দেওলের ইউএসপি। বলিউডের একাধিক মেগাবাজেটের ছবি রয়েছে তাঁর ঝুলিতে। কোনও দিন সলমন, আমির বা শাহরুখ খান হওয়ার মতো সম্ভাবনা দেখাতে পারেননি, কিন্তু বলিউডে তাঁর পায়ের তলার মাটি যথেষ্টই শক্ত ছিল। এহেন ববি দেওল আজ বলিউড থেকে অদৃশ্য। তাঁর ঝাঁকড়া চুল, পেশীবহুল চেহারায় মুখে এক নব্য প্রেমিকের লাজুক হাসি নিয়ে নায়িকাকে বলে ওঠা ‘সোলজার সোলজার’ ডাক আজ হারিয়ে গিয়েছে। ভারতীয় সিনেমার তরুণ প্রজন্ম ভুলতে বসেছে যে, ববি দেওল নামে কোনও নায়ক আজও আছে। ববিও সানির মতো ভুল করেছেন বলে আজ তিনি একটি ফ্লপ অভিনেতায় পরিণত হয়েছেন। বলিউড থেকে তিনি যে হারিয়ে গিয়েছেন তা নিজেই স্বীকার করেছেন ববি। জানিয়েছেন এই যন্ত্রণা এতটাই কঠিন যে তিনি একটা সময় কার্যত হতাশ হয়ে পড়েছিলেন। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে নিজেকে বদলাতে না পারাটাই যে তাঁর সিনেমাটিক কেরিয়ারের মুখ থুবড়ে পড়ার কারণ তাও মানেন তিনি।

সঞ্জয় দত্ত

Image Source – https://www.dailyinqilab.com

বলিউডের আরও একজন বিখ্যাত অভিনেতা হলেন তিনি। তবে তিনিও সুপার হিরো থেকে আজ ফ্লপ হিরোতে পরিণত হয়েছেন। একটা সময় ঈমানদার, ইনাম দাস হাজার, জিতে হ্যাঁ শান সে, মার্দোঁ ওয়ালি বাত, ইলাকা, হাম ভি ইনসান হ্যাঁ,কানুন আপনা আপনা,তাকাতওয়ার,খলনায়ক, বাস্তব, মুন্নাভাই এম.বি.বি.এস, পিকে (পার্শ্ব অভিনেতা)-র মতো ছবিতে তাঁর অসাধারণ অভিনয় দর্শকের মনে কেড়েছিল। কিন্তু তার নেশা করার অভ্যাস তাঁর ক্যারিয়ারকে ধ্বংস করে দিয়েছে। ব্যক্তিগত সমস্যা ও মাদকাসক্তি নিরাময়ের জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার আগে তার অভিনীত ও মুক্তিপ্রাপ্ত কয়েকটি ছবি বক্স অফিসে পরপর ফ্লপ হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: