ভর্তুকিহীন রেশন কার্ডের জন্য আবেদন গ্রহণ শুরু হবে 5 নভেম্বর থেকে, রইল বিস্তারিত তথ্য

বেঙ্গল 24×7 ডিজিটাল ডেস্ক : বর্তমানে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে রাজ্যের খাদ্য সরবরাহ দফতর সকলের জন্য কম দামে চাল গম বরাদ্দ করেছিল। মোদী সরকারের ডিজিটাল রেশন কার্ড শুরু হওয়ার পর সাদা সবুজ বা গোলাপি রেশন কার্ডে ভাগ হয়ে গিয়েছিল। যার মাধ্যমে দারিদ্রসীমার নীচে বসবাসকারী মানুষজন আরও বেশি সুবিধা পেতেন। তবে দারিদ্র সীমার উপরে বসবাসকারী পরিবারগুলির জন্য আর চাল বা গম এ ভর্তুকি দেবে না সরকার। তাই সেরা ছবিতে রেশন কার্ডগুলি বদলে ফেলে নতুন করে রেশন কার্ড গ্রহণ করতে হবে সেই পরিবারের সদস্যদের। তাই তো রাজ্য সরকারি তরফ থেকেই তাদেরকে ভর্তুকিহীন ডিজিটাল রেশন কার্ড দেওয়া হবে।

যদিও তাঁর মাধ্যমে কম দামে চাল গম ইত্যাদি পাওয়া যাবে না কিন্তু গৃহস্থালীর বেশ কিছু জিনিস পাওয়া যাবে অত্যন্ত কম দামে। তাই খাদ্য দফতরের তরফ থেকে 5 নভেম্বর তারিখ থেকেই অনলাইন বা অফলাইনে ভর্তুকিহীন ডিজিটাল রেশন কার্ডের আবেদন গ্রহণ করা হবে। যাঁরা ভর্তুকিহীন রেশন কার্ড পাবেন তাঁদের জন্য দশ নম্বর ফর্ম পাওয়া যাবে। অফলাইনে করতে হলে নির্দিষ্ট রেশন দোকান বা খাদ্য দফতর অফিসগুলি থেকে ফর্ম ও আবেদনপত্র গ্রহণ করা যাবে।

আবার কেউ যদি অনলাইনে আবেদনপত্র ডাউনলোড করতে চান সে ক্ষেত্রে খাদ্য দফতরের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট www.wbpds.gov.in এ গিয়ে দশ নম্বর ফর্ম ডাউনলোড করতে হবে কিংবা কেউ যদি অনলাইনে ফর্ম ফিলাপ করতে চান সে ক্ষেত্রে ফর্ম ফিলাপ করে অনলাইনে জমা দেওয়ার সুযোগ রয়েছে। ফর্ম ফিলাপ করার এক থেকে দুই মাসের মধ্যে বাড়িতেই রেশন কার্ড চলে আসবে। আর যাঁরা এই ডিজিটাল ভর্তুকিহীন রেশন কার্ড পাবেন তাঁরা বিশেষ সরকারি পরিচয়পত্র হিসেবে এটি ব্যবহার করতে পারবেন পাশাপাশি গৃহস্থালির জিনিসে অনেক ছাড় পাবেন।

খাদ্য দফতর সূত্রের খবর এখনও অবধি রাজ্যের বেশির ভাগ বিত্তশালী মানুষের কাছে কম দামে চাল গম পাওয়ার সুবিধা রয়েছে কিন্তু রাজ্য সরকার চাইছে সেই সুবিধাগুলি যাতে দারিদ্র্য সীমার নিচে বসবাসকারী মানুষ পায়। তবে 5 নভেম্বর থেকে ভর্তুকিহীন রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করার পাশাপাশি যাঁদের রেশন কার্ডে ভুল রয়েছে কিংবা রেশন কার্ড সংশোধনের প্রয়োজন রয়েছে তাঁরাও ফর্ম ফিলাপ করে জমা দিতে পারবেন।

জানা গিয়েছে এই নতুন কার্ডে নাম ঠিকানা ছাড়াও জন্ম তারিখ উল্লেখ থাকবে। তাই যাঁরা রেশন দোকান থেকে খাদ্যসামগ্রী তুলবেন না তাঁদের জন্য এই স্মার্ট কার্ড অত্যন্ত প্রয়োজনীয় বলে তারা মনে করছে রাজ্যের খাদ্য দফতর।

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: